সম্পাদকের চিঠি

(llcobangla.org)

ইহা হলো লিডিং লাইট কমিউনিস্ট অর্গানাইজেশনের আনুস্টানিক ভাবে প্রকাশিত প্রথম সংখ্যা। আমাদের এই আন্দোলন ও সংগঠন প্রতিস্টার পর থেকেই দিনে দিনে শক্তি অর্জন করছে। আজ আমাদের আন্দোলনের ফলাফল অনেক ক্ষেত্রেই দৃশ্যমান হয়েছে। আমাদের আন্দোলন আজ সকল মহাদেশে ছড়িয়ে পড়ছে। এশিয়া থেকে উত্তর আমেরিকা সহ সর্বত্র। আমাদের আন্দোলন আন্তর্জাতিক প্রকৃতির। এই সংগঠন বিশ্ব জোড়ে বিপ্লব সাধনের জন্য নিয়োজিত। আমরা সামগ্রীক বিবেচনায় সম্ভাব্য সকল পন্থায় কাজ করছি। আমরা পিছিয়ে থাকতে চাই না । আমাদের সকল সাথীরা মহান বিপ্লবী চেতনায় ভাষ্যর ।  কঠিন সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত রয়েছেন।

আদর্শ হলো আমাদের মুলঅস্ত্র ।
সকল মহান বিপ্লবী নেতারাই বিশ্ব বিজ্ঞান ও বিশ্বের জনতার মাঝে সূ সমন্বয় ঘটানোর প্রয়াস পেয়েছেন। তাঁরা বিশ্ব বিজ্ঞানের শিক্ষাকে বিশ্ব জনগণের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন । তাঁরা একই সাথে বিজ্ঞান ও জনতার ধারনাকে সমন্বয় করেছেন । আমরা ও বর্তমানের সবচেয়ে প্রাগ্রসর বিপ্লবী বিজ্ঞানকে, লিডিং লাইট কমিউনিজমকে মানুষের মাঝে প্রচার করব । আমরা জনতার মাঝে রাজনৈতিক শিক্ষার প্রসার ঘটাব। আওয়াম জনতার হাত আদর্শিক চেতনায় সিক্ত হয়ে বিপ্লবের শক্তিশালী হাতে পরিনত হবে। এই ম্যাগাজিনটি আমাদের লড়াই সংগ্রামের একটি শক্তিশালী  অস্ত্র হিসাবে পরিগনিত হবে। যারা আমাদের আন্দোলনে আগ্রহী তাঁদের হাতে আমরা এই অস্ত্রটি তুলে দেব। যারা মহান এক বিপ্লবের জন্য প্রস্তুত হবেন । মাকর্সবাদ, লেনিনবাদ ও মাওবাদের পর বর্তমানের সবচেয়ে উন্নত আদর্শিক স্তর হলো- লিডিং লাইট কমিউনিজম ।

 আমাদের আগের মহান নেতারা পৃথিবীতে আশান্তির আগুন দেখে বসে থাকেননি। তাঁরা কাজে নেমেছেন, নিজেদের কাধে দায়িত্ব নিয়েছে, তাঁরা বহু যন্ত্রনা সয়েছেন। তাঁরা পৃথিবীর বুঝা নিজেদের কাধে নিজারাই নিয়েছেন। তাঁরা সয়াহসিকতার সাথে আওয়াম জনতার সাথে মিশেছেন- মতবিনিয় করছেন। তাঁদের সাথে চলেছেন। তবে তাঁরা জনতার পূজা করেননি – যা স্বাভাবিক তাই করছেন। তাঁরা জনতার মাঝে থেকে তাঁদের নেতৃত্বের জন্য এগিয়ে এসেছিলেন । তাঁদের ছিলো ব্যাপক জনসংযোগ। আর এই জন সংযোগের মানে এই নয় যে তাঁরা কোন রেস্তোয়ারার সেবক, যে তাঁরা অবিবেচক প্রকৃতির খদ্দেরের চাহিদা মেটাতে সে যা চাইবে তাই দিবে। আবার এর মানে এও নয় যে তাঁরা জনতার আশা আকাঙ্খার কোন গুরুত্বই দিতেন না। জন সংযোগ কথাটির যথাযথ অর্থই হল – লিডিং লাইট কমিউনিজমের জন্য বিপ্লবী পথে সচেতন ভাবে জনগনকে পরিচালনা করার প্রয়াস। আওয়াম জনতার মাঝে বিপ্লবী চেতনার বিকাশ – তাদেরকে দিনে দিনে প্রাগ্রসর করা একটি অন্যতম কাজ। জনসংযোগের লক্ষ্য হলো – জনসাধারনকে সূ সজ্জিত করা একটি মহান পরিবর্তনের জন্য । এর অর্থ হলো তাদেরকে লিডিং লাইট কমিউনিজমের আলোকে আলোকিত করা । এর মানে হলো – ভয়-ভীতি দূরে রাখা। এর অর্থ হলো নেতৃত্ব দেয়া।  এই প্রকাশনাটি ও হলো একটি বিরাট জনসংযোগের মাধ্যম। ধারনা হলো আমাদের প্রধান ক্ষমতা।

লিডিং লাইট কমিউনিজম হলো একটি শক্তিশালী অস্ত্র। এটা হলো একটি আধ্মাতিক হাইড্রোজেন বোমা। সমগ্র দুনিয়ার জন্য  ইহা একটি প্রগ্রসর বিপ্লবী বিজ্ঞান। ইহার রাজনৈতিক অর্থনীতি, শিক্ষার বিজ্ঞান, ইতিহাস ও সংগঠন ইত্যাদী। এই প্রকাশনাটি লিডিং লাইটের কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয় পাঠকের নিকট তোলে ধরবে। বিশেষ করে রাজনৈতিক অর্থনীতি। আমরা একটি অগ্রগামী বাহিনী হিসাবে বিপ্লবোত্তর পরিস্থিতিতে দুনিয়ার চেহারাটা কেমন হবে তা পরীক্ষা নিরীক্ষা করছি। বর্তমানে দুনিয়ায় এমন কোন আন্দোলন নেই যারা আমাদের মতই বিজ্ঞান বিত্তিক ও সৃজনশীল ভাবে কাজ করছেন।

তত্ব ছাড়া কর্ম অন্দ্বের মত। বিজ্ঞান বিহীন কমিউনিস্ট, লিডিং লাইট, ও নেতৃত্ব কিছুই  হতে পারেনা । প্রকৃত নেতৃত্বের জন্য বিপ্লবী বিজ্ঞান  তথা লিডিং লাইট দরকার। আমাদের সামানে তাকাতে হবে। ইহা একটি মহান বিপ্লবের উদয় হওয়ার সময়। আজ লিডিং লাইট হিসাবে আমরা কমিউনিস্ট ও বিপ্লবী বলতে কি বুঝি তা অনুধাবন করতে হবে। আমরা অব্যশ ই সামগ্রীক ভাবে লিডিং লাইট কে অনুসরন করতে ভীত নই। আমরা আমাদের অহংকার, নিচতা ও ইগোকে দূরে রাখবো । আমাদেরকে ঐক্যবদ্ব  হতে হবে। আমাদেরকে অবশ্যই সুশৃংখল হতে হবে। আমাদেরকে জনতার সেবক হতে হবে। বিপ্লব কোন ভিরু কাপুরুষের জন্য নয় । আমরা দুনিয়ার মানুষের মুক্তির জন্য প্রথিবীর নিরাপত্তার জন্য লড়াই চালিয়ে যাব। প্রয়োজনে শহিদ হব । আমরা এগিয়ে যাওয়ার জন্য  ভীত নই। আমরা এগিয়ে যাবোই । সকল অবস্থায়ই এগিয়ে যাব। আমাদের সুর্য উঠছে ! আমাদের সুখের দিন আসছে!

Advertisements