একটি সাধারণ অংকের প্রশ্ন …মার্কিন মুল্লুকের সংখ্যা গরিষ্ট মানুষ ; বিপ্লবের পক্ষে নাকি বিপক্ষে ?

(llbangla.org)

২০০৬ সালের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরিসংখ্যান ব্যুরোর প্রতিবেদন অনুসারে মধ্যম মানের একটি পরিবারের  বার্ষিক আয় হলো ৪৮,২০১ মার্কিন ডলার।  পরিবার বলতে ১৪ বছরের উপরে যাদের বয়স কেবল সেই সকল সদস্য যারা কর্মে নিয়োজিত বা বেকার তাঁদের জন্য বরাদ্ব ছিল ২৬,০৩৬ মার্কিন ডলার।
মধ্যম মান কি ? মধ্যম মান হলো তাঁরা যারা চরম দরিদ্র ও নয় আবার অতি ধনবান ও নন, যাদের আয় মধ্যম মানের, তাঁদের আয় দরিদ্র ও ধনীদের আয়ের মাঝামাঝিতে অবস্থিত। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মোট পরিবারের অর্ধেকের ও বেশী পরিবার বছরে ৪৮,২০১ মার্কিন ডলার আয় করে থাকেন। প্রতি পরিবারের অর্ধেক সদস্যরা সাধারনত ২৬,০৩৬ ডলার আয় করেন।
এখন আমরা এই আয়ের অর্থের একটি পরিবর্তিত বিশ্লেষণ করে দেখব। আমাদের কাছে ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০০৮ সালের একটি তৈরী হিসাব আছে তা এখানে সকলের জ্ঞাতার্থে উপস্থাপনের প্রয়াস পাব ঃ
পিলিফিনে কি একজন শ্রমিক প্রতিবছর ১,০৫৪,০০০ পেসো আয় করেন ? একজন মার্কিনীর এই পরিমান ১,০৫৪,০০০ অর্থ বা পেসো আয়ের সূ ব্যবস্থা রয়েছে। তাঁরা  বছরে যে পরিমান পুঁজি অর্জন করেন তাতে কি তাঁরা প্রলেতারিয়েতের অংশ হতে পারেন ?
ভারতের একজন শ্রমিক প্রতিবছর ১,০৩৮,০০০ রুপী আয় করেন ? একজন মার্কিনীর বার্ষিক আয় সহজেই ১,০৩৮,০০০ রুপী হয়। তাঁরা  বছরে যে পরিমান পুঁজি অর্জন করেন তাতে কি তাঁরা প্রলেতারিয়েতের অংশ হতে পারেন ?
একজন নেপালী শ্রমিক প্রতি বছর কি ১,৬৯০,০০০ রুপী আয় করেন ? একজন মার্কিনীর বার্ষিক আয় সহজেই ১,৬৯০,০০০ রুপী হয়। তাঁরা  বছরে যে পরিমান পুঁজি অর্জন করেন তাতে কি তাঁরা প্রলেতারিয়েতের অংশ হতে পারেন ?
একজন মেক্সিকান শ্রমিক প্রতিবছর ২৭৮,০০০ মেক্সিকান পেসো কি আয় করতে পারেন ? একজন মার্কিনীর বার্ষিক আয় সহজেই ২৭৮,০০০ মেক্সিকান পেসো  হয়। তাঁরা  বছরে যে পরিমান পুঁজি অর্জন করেন তাতে কি তাঁরা প্রলেতারিয়েতের অংশ হতে পারেন ?
একজন শ্রীলংকান শ্রমিক প্রতিবছর কি আয় করেন ২,৮১২,০০০ শ্রীলঙ্কান রুপী ? একজন মার্কিনীর বার্ষিক আয় সহজেই ২,৮১২,০০০ শ্রীলঙ্কান রুপী  হয়। তাঁরা  বছরে যে পরিমান পুঁজি অর্জন করেন তাতে কি তাঁরা প্রলেতারিয়েতের অংশ হতে পারেন ?
একজন  পেরুবিয়ান শ্রমিক বছরে কি ৭৬,০৬৫ পেরুবিয়ান সোল আয় করতে পারেন ? একজন মার্কিনীর বার্ষিক আয় সহজেই ৭৬,০৬৫ পেরুবিয়ান সোল হয়। তাঁরা  বছরে যে পরিমান পুঁজি অর্জন করেন তাতে কি তাঁরা প্রলেতারিয়েতের অংশ হতে পারেন ?
একজন  বাংলাদেশী শ্রমিক বছরে কি ৪৮,৫৬০০০ টাকা আয় করতে পারেন ? একজন মার্কিনীর বার্ষিক আয় সহজেই ৪৮,৫৬০০০ টাকা হয়। তাঁরা  বছরে যে পরিমান পুঁজি অর্জন করেন তাতে কি তাঁরা প্রলেতারিয়েতের অংশ হতে পারেন ?
উক্ত প্রশ্ন গুলোর প্রেক্ষিতে যদি আপনার উত্তর হয় হ্যাঁ, তবে বলব আপনি ভূল পথে চলছেন। এর অর্থ হলো যেখানে একটি পরিবার আয় করেন ১০০,০০০ মার্কিন ডলার, ৪,০৪৯,০০০ পিলিফিনো পেসো, ৩,৯৮৫,০০০ ভারতীয় রুপী, ৬,৪৯৩,০০০ নেপালী রুপী, ১,০৭০,০০০ মেক্সিকান পেসো, ১০,৮০০,০০০ শ্রীলঙ্কান রুপী, ২৯২,০০০ পেরুভিয়ান সোল, ৮০,০০০০০ টাকা,  ইত্যাদি। রিমের মতে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই শ্রেনীর মানুষেরা বিপ্লবী বা বিপ্লবী শক্তি হিসাবে রূপান্তরিত হতে পারে।
উপরোক্ত প্রশ্নের জবাবে যদি আপনার উত্তর হয় ‘না’ তবে বলব আপনি বিজ্ঞান ভিত্তিক পথে আছেন বা বিজ্ঞানের পথে চলছেন। সামগ্রীক ভাবে দেখলে আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন যে মার্কিন মুল্লুকে বিপ্লবের জন্য কোন সামাজিক ভিত্তি নেই। আপনি লিডিং লাইটের পথে আসতে পারেন। আপনাকে এ পথে স্বাগতম।
যদি আপনি এই সকল প্রশ্নের জবাব প্রকাশ্যে দিতে না চান। অথচ আপনি এর উত্তর জানেন । তবে বলব আপনি এক জন কাপুরুষ । আপনি পেছনের টেবিলে বসার উপযুক্ত ভীরু মানুষ। আপনাকে মার্ক্সবাদী বলে পরিচয় দেয়া থেকে বিরত থাকুন। আপনি বিপ্লবী নন । কেননা বিপ্লবীরা সত্য কথা বলতে ভয় পায় না । কোন বিপ্লবী কাপুরুষ নন।

আমদের বন্দ্বু কে ? আর কে আমাদের শত্রু ? এই গুলি হলো প্রথম গুরুত্ব পুর্ণ প্রশ্ন। এই গুলিই হলো মহান মাওয়ের নির্বাচিত কাজের সূচনা বক্তব্য । যারা শত্রু ও বন্দ্বুর পার্থক্য বুঝেনা তাঁরা আর যাই হোক বৈজ্ঞানিক সাম্যবাদী হতে পারেন না । বিপ্লবী বিজ্ঞান ছাড়া – সামাজতান্ত্রিক বিপ্লবের পথে ক্রমাগত এগোনো সম্ভব নয়। আজকের সবচেয়ে বড় বিষয় হলো দুনিয়াটা ধনিক শ্রনী ও দরিদ্র নিপিড়িত শ্রেনীর মানুষ এই দুই ভাগে ভাগ হয়ে গেছে।  যারা এটা দেখেন না তাঁরা কমিউনিস্ট বা সাম্যবাদী নন। #শিহাব

Advertisements