গাজা উপত্যাকায় ইসরাইলের হামলায় লিডিং লাইটের তিব্রনিন্দা !

(llcobangla.org)

দুনিয়ার প্রতিটি সচেতন মানুষের উচিৎ গাজা উপত্যাকায় ইসরাইলীদের নির্মম হামলার প্রতিবাদ জানানো। ইসরাইল ফিলিস্তিনিনের সাথে যে আচরন করছে, হত্যা যজ্ঞ চালাচ্ছে তা বিগত অর্ধ শতাব্দীর ইতিহাসে এর নজির নেই। লক্ষ লক্ষ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করছে, তাঁদের বাড়ী ঘর থেকে উচ্ছেদ করছে। ইসরাইল তা করতে পারছে কেবল মাত্র সাম্রাজ্যবাদী শক্তির সমর্থনের কারনে। বিগত দশকে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার কেবল আমেরিকাই ইসরাইলীদেরকে প্রদান করেছে। ইসরাইল আমেরিকার প্রধান সামরিক সাহায্য প্রাপ্ত দেশ। এই সাহায্য ইসরাইলকে সাম্রাজ্যবাদের দুষরে পরিণত করেছে। ইসরাইল এখন আমেরিকান সাম্রাজ্যবাদের মেকী চেহারা বা মুখোশ। ইসরাইল এখন যা করছে তা কিন্তু কেবল তাঁর নিজের জন্য করছে না বরং তাঁর সাম্রাজ্যবাদী বন্দ্বুর জন্য ও করছে। ইসরাইল কেবল তাঁর নিজের লোকদের জন্য জায়গা করতে ফিলিস্তিনিদেরকে খতম করছে না বরং তাঁরা আরব, ইরান এবং এই অঞ্চলের অন্যান্য দরিদ্র দেশ গুলোকে ভয় দেখানর জন্য ও কাজ করছে। ইসরাইল অগনতান্ত্রিক ও বিতর্কিত প্রশাসকদের সাথে সূ সম্পর্ক স্থাপন করতে চাইছে – যদি ও সেই প্রশাসকরা নিজেদের জনগণের উপর নিপীড়ন চালাছে। ইসরাইল কেবল একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ই নয় বরং ইহা একটি মারাত্মক প্রতিক্রিয়াশীল দেশ।

গাজায় সম্প্রতি চালানো সকল প্রকার সন্ত্রাসী কর্মকান্ড – নারী, পুরুষ ও শিশু হত্যার জন্য ইসরাইল সম্পুর্ণরূপে দায়ী। প্রথম থেকেই অনেক গুলো শান্তি প্রস্তাব দেয়া হয়েছে কিন্তু ইসরাইল প্রতি মুহুর্থে তাঁর প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শন করে আসছে। ইসরাইলের কৌশল হলো তাঁরা যতক্ষন পর্যন্ত ফিলিস্তিনিদের সম্পদ, জমি নিজেদের দখলে নিতে না পারবে ততক্ষন পর্যন্ত তাঁরা কোন কথাই শুনবে না । কোন ভাবেই শান্তি ইসরাইলের কাম্য নয়। বিগত সাপ্তাহে শত শত ফিলিস্তিনিকে ইসরাইল নিষ্ঠুর ভাবে হত্যা করেছে। হাজার হাজার সাধারণ মানুষকে আহত করেছে। ফিলিস্তিনিদের হাজার হাজার বাড়ী ঘর ধ্বংস সাধন করেছে। পক্ষান্তরে ইসরাইলীদের তেমন কিছুই হয় নাই। মাত্র একজন ইসরাইলী মারা গেছেন। এই অসামঞ্জস্যশীল ক্ষয় ক্ষতি ও হত্যার চিত্র আমাদের সামনে পরিস্কার করে দেয় কারা আক্রমণকারী ও সন্ত্রাসীঃ ইসরাইল। ইসরাইল আরো ১০,০০০ হাজার সৈনিক গাজায় পাঠীয়েছে আরো ফিলিস্তিনী ভূমি দখলের জন্য। ঊরা ভূমি দস্যু ।
আজ দুনিয়ার সকল মানবতাবাদি মানুষ ঐক্যব্দ হয়ে দাবী জানাচ্ছে – গাজায় ইসরাইলীদের তান্ডব বন্দ্ব করার জন্য। সকলেই শান্তির জন্য আহবান করছেন। সকলেই ফিলিস্তিনিদের জন্য ন্যায় বিচার কামনা করছেন। সকলেই ফিলিস্তিনি ভুমি দকলের নিন্দা করছেন এবং ইসরাইলীদের আবাসস্থল তোলে নিতে বলছেন। সকল শান্তিকামী মানুষ ইসরাইলীদের সকল প্রকার সন্ত্রাস বন্দের দাবী জানাচ্ছেন – তাঁরা বলছেন ফিলিস্তিনিদের ভূমি যেন আর দখল করা না হয়। সকল উদ্ভাস্থদের স্বীয় ভূমিতে ফিরে যাওয়ার অধিকার আছে। লিডিং লাইট ফিলিস্তিনিদের দুঃখ কষ্টের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করছে। মনোবল হারাবেন না । শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যান। আমরাই জয়ী হব। #শিহাব  

Advertisements