২৩শে ডিসেম্বর, জননেতা আব্দুর রাজ্জাকের মৃত্যু বার্ষিকীতে আমাদের শ্রদ্বাঞ্জলী –

Razzaq_a

(llbangla.org)

বাঙ্গালী জাতীর মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম শীর্ষ সংগঠক জনাব আব্দুর রাজ্জাক ২০১১ সালের ২৩ শে ডিসেম্বর ইহলোক ত্যাগ করেন। তিনি সারা জীবন মানুষের সেবা ও সার্বিক মুক্তির লক্ষ্যে কাজ করে গেছেন। তিনি ১৯৬৩ সালে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন নেতা ছিলেন। তিনি ন্যায় ভিত্তিক সমাজ বিনির্মানের জন্য লড়াই করেছেন। ১৯৭০ সালে তিনি প্রাদেশিক সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৭১ সালের মহান মুক্তি যুদ্বের একজন অগ্রসেনানী ছিলেন। বাংলাদেশ মুক্তি ফ্রন্ট ও মুজিব বাহীনীর একজন জানবাজ ক্যারেশমেটিক নেতা হিসাবে রণাঙ্গনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। তিনি মেঘালয়ে একজন সেক্টর কম্যান্ডার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। স্বৈরাচারী আইয়োব খান এই মহান নেতাকে ১৯৬৪ সাল থেকে ১৯৬৫ সাল ১৯৬৭ সাল থেকে ১৯৬৯ সাল পর্যন্ত কারাগারে বন্দ্বি রাখে তিনি স্বাধীন দেশে জাতির জনক বঙ্গবন্দ্বু হত্যার পর আবার সেনা শাসক কর্তৃক গ্রেফতার হন ১৯৭৫ সাল থেকে ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত কারাগারে বন্দ্বি ছিলেন। দেশে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন সংগ্রাম করে ১৯৯৬ সালের জাতীয় নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে তিনি সরকারের পানি সম্পদ মন্ত্রী হিসাবে ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। তিনি কখন ও তার আদর্শ থেকে বিচ্যুত হন নাই। জনতার পক্ষে ন্যায়ের সংগ্রামে তিনি এখন ও আমাদের প্রেরনার উৎস। তিনি জনতার কাতারে সর্বদাই ছিলেন। তার লক্ষ্যই ছিলে সমাজের সকল অন্যায় অবিচার ও শোষণের বিরুদ্বে। আমরা জননেতা আব্দুর রাজ্জাকের বিদেহী আত্মার মুক্তি কামনা করছি । এবং তার প্রতি আমারা শ্রদ্বা নিবেদন করছি।

 

Advertisements