গোলাপী সাম্রাজ্যবাদের দূত ইজরাইলের লেডী গগা

gaga_dadt

(llbangla.org)

“ উপরে হাত তুলে আনন্দ করুন। আর বলুন হে ইজরাইল তুমি যতই শক্তিশালী, সাহসী, ও আত্ম বিশ্বাসী হও, তা আমি পরোয়া করিনা”

 

প্রথম বিশ্ববাদিদের মধ্যে লেডী গগা একজন তরুনী, সেলিব্রেটি, রাজনৈতিক ও প্রভাব শালী হিসাবে পরিগনিত। তিনি কখনো “নারী” আবার কখনো “পুরুষ” হিসাবে নিজেকে প্রকাশ করতে পছন্দ করেন। তার বিখ্যাত “এইভাবে বেড়ে উঠুন” গানে “ জেন্ডার সামতা” এবং “আন্ত বিভাগীয় সংহতি” ব্যাপক ভাবে জনপ্রিয়তা পেয়েছে।  তবে লেডী গগার রাজনীতির আরো একটি বিশেষ দিক আছে। সম্প্রতি, তিনি ইজরাইল কর্তৃক ফিলিস্তিনিদের গনহত্যার পক্ষে কথা বলেছেন। এই সুপার স্টার নিজেকে সাম্রাজ্যবাদের গোলাপী দূত হিসাবে জাহির করে তেলাবীবে গানের আসর জমিয়ে ছিলেন। তার সেই বিশাল গানের আসরটি মুলত রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই আয়োজন করা হয়েছিলো। এতে ইজরাইলের মানবাধিকার লঙ্গনের বিষয়টি ধামাচাপা দেবার প্রায়স লক্ষ্যনীয়। তিনি তার এক সাক্ষাৎকারে ইজরাইলকে বর্জনের বিষয়টি উপেক্ষা করে, লেডী গগা বলেনঃ

“ তেল আবিবের পরিবেশ চমৎকার। দুনিয়া ইসরাইলকে যে ভাবে দেখে তা বাস্তব নয়। ইহা একটি সুন্দর জায়গা, এখানকার মানুষেরা ও খুবই ভালো। সেখানে আমার একটি ধারুন অনুস্টান হয়েছে। তা আমার জন্য ভক্তদের জন্য উপভোগ্য ছিলো” 

জায়নবাদি টনি ব্যানেটের সাথে লেডি গগার কনসার্ট করার বিষয় টি বহুল আলোচিত, তাদের একটি কনসার্টের  আসর বিগত সামারে টানা ৫০ দিন হামাস ও ইসরাঈলীদের সাথে সংঘাত কালে স্থগিত হয়ে গিয়েছিলো। এখন লেডি গগা ইসরাইলীদের প্রতি সমর্থন জানিয়ে নানা কার্যক্রম চালাচ্ছেন। যা হিব্রুতে বলে “আনি হুবাট এট’চেইম” “ আমি তোমাকে ভালোবাসি” । তিনি এখন প্রায়সই এই বাক্যটি তার ইসরাইলী অনুসারীদের উদ্দেশ্য করে বলে বেড়ান।

লেডী গগা  তার গোলাপি সাম্রাজ্যবাদী রাজনীতির জন্য আরো অনেক কাজ করছেন। তার কথা হলো আমেরিকার সামরিক বাহিনীকে বলে দাও তারা যেন, “ কোন রাষ্ট্রীয় নীতি নিয়ে প্রশ্ন না করেন” এমন কি সমকামিতার জন্য ও নয়। লেডী গগা সেনাকর্মের বিরুদ্বে কিছুই বলতে চাননা, তা যদি হয় ইরাকী শিশুদের প্রতি বোমা ফেলা বা আফগানিস্তানের ভূমি দখল করা  তিনি সামকামিতার পূর্ন অধিকারের জন্য  আন্দোলন সমর্থন করেন। লেডী গগার রাজনৈতিক নিতি বিশ্বাস ও সংস্কৃতি সাম্রাজ্যবাদের সাথে সম্পূর্ন একাত্ম, তার পূর্ন সমর্থন আছে ইস্রাঈলের কর্মকান্ডের প্রতি।

প্রথম বিশ্ববাদি নারীবাদিরা সকল সময়েই ইসরাইল কর্তৃক ফিলিস্তিনীদেরকে  হত্যা ও আরবদেরকে নির্মূলের সমর্থক। তাদের ভাষ্য হলো ইসরাইল হচ্ছে একমাত্র দেশ যেখানে গণতন্ত্র, বুদ্বিবৃত্তি ও স্বাধীনতা রয়েছে। এরা আরবদেশ সমূহকে ভয়ংকর, বিরক্তিকর, পাগলামী ও অন্দ্ববাদিদের ভূমি হিসাবে চিত্রিত করেছেন। তাদের মতে যারা ইসরাইলের বিরুদ্বে কাজ করেন তারা ভূল পথে আছেন, তাদের কথা হলো ইসরাইলীরা উগ্র নয়, এমন কি বিগত কয়েক দশক ধরে ফিলিস্তিনীদের উপর যে গণহত্যা চালানো হচ্ছে তা ও অন্যায় কিছু নয়। ফিলিস্তিনিরা নিপিড়নের শিকার নয় বরং এরা হলো আগ্রাসী শক্তি।

লেডী গগাই কিন্তু প্রথম ব্যাক্তি নয় যিনি গোলাপী সাম্রাজ্যবাদের পক্ষে কথা বলছেন, বা ইসরাইলের জন্য কাজ করছেন। তার আগেও ম্যাডোনা সেই একেই কাজ করে  গেছেন। তাদের সমর্থন সাধারন লোকদের দৃষ্টিভঙ্গি ও আচরনকে ইসরাইল ও সমকামীদের প্রতি ইতিবাচক পরিবর্তনে ভূমিকা রেখেছে। ইসরাইলের মনোভাব এখন পরিবর্তীত হচ্ছে সাম্রাজ্যবাদের দিকেই উদাহরন হিসাবে উল্লেখ যোগ্য যে, ইসরাইলের ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মন্ত্রী গাইডেন সা’র জনসংখ্যা অধিদপ্তরকে এই মর্মে নির্দেশনা দিয়েছেন যে, তারা যেন যে কোন লিঙ্গের ইহুদি পরিবারকে নাগরিকত্ব প্রদান করতে দেরী না করেন। সা’র অভিবাসন কর্তৃপক্ষের প্রতি এক চিঠিতে লিখেন,      “ আমি ইহুদিদের মধ্যে কারা সমকামী আর কারা সমকামী নয় তা দেখতে চাই না, ইহুদি নিয়ম অনুসারে যেকোন ধরনের বিবাহিত পরিবার আমাদের দেশে নাগরিকত্ব পাবেন”।  সাম্রাজ্যবাদিরা দিনে দিনে সামাজিক গণতান্ত্রিক, উদারতাবাদ, ও গোলাপী বন্দ্বুত্ব গ্রহনের নিতি গ্রহন করছে। তারা তাদের উপরের দিকের স্বরূপ ক্রমে পরিবর্তন করে তৃতীয় বিশ্বে তাদের প্রধান্য প্রতিস্টার লক্ষ্যে নারী পুরুষ সম্পর্কের  প্রাচীন ধারার খৃস্টান ও অন্যান্য প্রথাকে বিতারনের প্রয়াস চালাচ্ছে। উদারতাবাদি, গোলাপী সাম্রাজ্যবাদিরা এখন প্রথম বিশ্বে নারী নিতি ও সমকামিতা বিষয়ে তৃতীয় বিশ্বের সাধারন মানুষের বিরুদ্বে নিজেদের ঐক্য গড়ে তুলছে। তাদের মূখে ভিন্ন ভাষায় তা প্রকাশিত হচ্ছে। তারা যায়নিজম ও সাম্রাজ্যবাদের জয় গান গাইছে। যা ফিলিস্তিনিদের জন্য মরন দশায় পরিনত হবে।

আমরা আমাদের ইতিহাস ঐতিয্য রক্ষার জন্য নিজেদেরকে পথ করে নিতে হবে। আমরা সাম্রজ্যবাদ কর্তৃক সৃষ্ট সমস্যা নিয়ে বসে থাকব না । সাম্রাজ্যবাদের বিরুধিতার জন্য তাদের গোলাপী পতাকার বিপরীতে আরেক সাম্রাজ্যবাদী কালো পতাকা যথেষ্ট নয়। উদারতাবাদ ও ঐতিহ্যবাদ যদি বিজয়ী হয় তবে তৃতীয় বিশ্ববাদ পরাজিত হবে। সাম্রাজ্যবাদ যে পরিচয়েই আসুক না কেন এরা সামগ্রীক বিবেচনায় সাধারন জনগণের শত্রু। আমরা চাই সাম্রাজ্যবাদের আসল স্বরূপ উন্মোচিত হোক এবং জনগণ এদেরকে বিতারিত করুক। আমাদের লক্ষ্যই হলো সত্যিকার ভাবে নারী মুক্তি ও মানব মুক্তি নিশ্চিত করা। সত্যিকার মানব মুক্তির লক্ষ্য থাকে মানবতাবাদের সকল শত্রুদের বিতারন করা । প্রথম বিশ্ববাদি ও প্রথম বিশ্ববাদি সমকামি  গুষ্টি নারী-পুরুষ মানবতার দুশমন। লিডিং লাইট তার নিজস্ব আলো হাতে নিয়ে এগিয়ে যাবে ।  এ কে এম শিহাব ।

 

তথ্য উৎস

 

http://www.timesofisrael.com/lady-gaga-world-is-wrong-about-israel/

http://www.jpost.com/Diaspora/Interior-Minster-Saar-Jews-can-now-make-aliya-together-with-same-sex-partners-370837

 

Advertisements